(মূল লেখাঃ বকলম ডট কম)

ভয়াবহ ব্যাপার! আজকে থেকে আমাদের প্রফেসরের বউও অফিসে বসবে! যেকোন গ্র্যাড স্টুডেন্টের জন্যই এটা একটা দুঃস্বপ্ন হওয়ার কথা!

যারা গ্র্যাড লাইফের সাথে পরিচিত না তাদের অবগতির জন্য জানিয়ে রাখি- এখানে ফান্ডিং পেয়ে যারা পড়তে আসে তাদেরকে সাধারণত প্রফেসরের সাথে রিসার্চ করতে হয়। এজন্য দেয়া হয় নির্দিষ্ট অফিস। একই প্রফেসরের ছাত্ররা সাধারণত একই রুমে বসে। তবে প্রফেসর অবশ্যই ঐ রুমে বসে না। কোন কোন প্রফেসরের যুক্তি- ছাত্ররা যেহেতু রিসার্চের জন্য ঘন্টাপ্রতি বেতন পাচ্ছে, তাই চাকরীর মতই সকাল-সন্ধ্যা অফিস করতে হবে। অফিস থেকে বের হতে পারবে কেবল কোন ক্লাস থাকলে।

এমনিতে আমাদের প্রফেসর কাজ পেলেই খুশি, অফিসে বসেই সেটা করতে হবে এমন কোন বাধ্যবাধকতা নেই। কিন্তু সমস্যা হল চায়নিজ কলিগদেরকে নিয়ে। আমার প্রফেসর যেহেতু চায়নিজ, তাই গ্রুপেও চায়নিজদের আধিক্য। আর তারা সারাক্ষণই অফিসে বসে থাকে। আসলেই সারাদিন ধরে কাজ করে, নাকি ‘ইজি কাজে বিজি’ তা এখনো বুঝে উঠতে পারিনি।

সেমিস্টারের প্রথম দিন বলে আমি সকাল থেকেই অফিসে ছিলাম। এই সময় প্রফেসর তার বউকে নিয়ে হাজির। জানালেন এই সেমিস্টারে একটা প্রজেক্টে সে কাজ করবে। শুনে আমরা আনন্দে উদ্ভাসিত হয়ে ওঠার ভান করলাম। চেয়ার, টেবিল আর একটা কম্পিউটার তাকে সেট করে দেয়া হল। তারপর যে যার কাজে মনোনিবেশ করলাম। কারও ব্রাউজারেই ফেইসবুক/টুইটার-এর চিহ্নও নেই। সবাই কেবল গুরুত্বপূর্ণ ওয়েবসাইটগুলোতেই ব্রাউজ করছে। কে জানে, কোন ফাঁকে ঐ মহিলা দেখে ফেলে আর বাসায় গিয়ে বলে বসে- ওগো, জানো…তোমার ঐ স্টুডেন্টটা না মস্ত ফাঁকিবাজ!

চায়নিজ-ভারতীয়-বাঙ্গালি প্রফেসর, সবার নামেই ছাত্রদের শতশত অভিযোগ। এদের বেশিরভাগের মূলনীতি একই- ছাত্রদের যতবেশি প্রেশার দেয়া হবে, আউটপুট ততই বেশি আসবে। কিন্তু তারা বুঝতে চায় না যে সবসময় এই ঐকিক নিয়ম খাটে না। কাজের মান এক্ষেত্রে খারাপ হয়ে যেতে পারে। তবে আমেরিকান প্রফেসরদের প্রশংসায় সবাই বেশ গদগদ। আমিও যে কয়জনকে দেখেছি বেশ ভাল লেগেছে।

গ্র্যাড লাইফ বেশ ভাল ধরতে পেরেছেন জর্জ চ্যামপিএইচডি কমিক্‌সে একটার পর একটা মজার মজার পর্ব উপহার দিয়েই যাচ্ছেন এই লোক। আরও মজা পাই যখন আমার আশেপাশের ঘটনাগুলোর সাথে কার্টুনগুলো হুবুহু মিলে যায়! মাইনুল ভাই ফেইসবুকে বেছে বেছে কিছু শেয়ার করেছেন। তার কয়েকটা এখানে দিলামঃ

বিঃ দ্রঃ আমি আর জেমিন ফিফা খেলার জন্য নতুন জায়গা খুঁজছি। অফিসটা আর নিরাপদ নয়…

(চলবে)

Advertisements